বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ০৮:২৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম
রাঙ্গুনিয়ার তৃণমুল আওয়ামী লীগ নেতা কাশেমের মৃত্যুতে তথ্য মন্ত্রীর শোক করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়া লোকজনদেরকে সহায়তার আওতায় আনা হয়েছে – ডিসি চট্টগ্রাম জেলা চট্টগ্রামে এসে পৌঁছেছে মর্ডানা ও সিনোফর্মের আরও ১ লাখ ৮৫ হাজার ২’শ ডোজ কোভিড-১৯ ৫০০ কর্মজীবী ও নির্মাণ শ্রমিকের মাঝে আ জ ম নাছিরের ত্রাণ সহায়তা ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ২৩৭ জনের মৃত্যু লকডাউনকালীন অসহায় শিশু ও গরীব দুঃস্থদের মাঝে চট্রগ্রাম নাগরিক ঐক্যর পক্ষ থেকে রান্না করা খাবার বিতরণ চট্টগ্রামে করোনা সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী, নিরবচ্ছিন্ন সেবা দিয়ে যাচ্ছে এশিয়ান স্পেশালাইজড হসপিটাল আগামী রবি ও বুধবার ব্যাংক বন্ধ আল্লামা মুফতি ইদ্রিছ রেজভীর ইন্তেকাল জাপা নেতা তপন চক্রবর্ত্তীর মৃত্যুতে উত্তর জেলা জাতীয় পার্টির শোক প্রকাশ

আউট  অব স্কুল চিলড্রেন এডুকেশন কর্মসূচির সভা

চট্টগ্রামে চতুর্থ প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ন কর্মসূচির (পিইডিপি-৪) সাব কম্পোনেন্ট ২.৫ আউট  অব স্কুল চিলড্রেন এডুকেশন কর্মসূচির চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন এলাকায় কর্ণেল হাট এলাকার থানা পর্যায়ের কর্মসূচি বাস্তবায়ন বিষয়ক অবহিতকরণ সভা আয়োজন করা  হয়েছে।আজ ৮ মার্চ দুপুর ১২ টায় নগরের হলি ফেইম রেস্টুরেন্টে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঢাকা আহসানিয়া মিশন এ অবহিতকরণ সভা আয়োজন করেছে।অনুষ্ঠানে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. শহিদুল ইসলাম প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। জেলা উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক মো. জুলফিকার আমীন এর সভাপতিত্বে এবং প্রোগ্রাম সুপারভাইজার মাহফুজা মাহদীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে পাহাড়তলী থানা শিক্ষা অফিসার মোসা. বেঞ্জুয়ারা বেগম, ডবলমুরিং থানা শিক্ষা অফিসার মাহমুদুজ্জামান, জেলা প্রোগ্রাম ম্যানেজার এস এম কামরুল ইসলাম, থানা  প্রোগ্রাম ম্যানেজার জাহেদুল হাসানসহ বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষাকগণ উপস্থিত ছিলেন।সভায় প্রোগ্রাম ম্যানেজার কামরুল ইসলাম শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, আউট  অব স্কুল চিলড্রেন এডুকেশন কর্মসূচি সরকারের অগ্রাধিকারমূলক একটি প্রকল্প। এ প্রকল্পের আওতায় ৮ থেকে ১৪ বছর বয়সী ঝড়ে পরা শিশুদের শিক্ষার আওতায় আনা হয়। বিদ্যালয়ে যাওয়া শুরু করে পঞ্চম শ্রেণি পাশ না করেই যারা বিদ্যালয়  ছেড়ে দিয়েছেন তাদের জন্য এ শিক্ষা ব্যবস্থার আয়োজন করেছে সরকার।সরকারের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হচ্ছে নিরক্ষরমুক্ত সমাজ গঠন করা।  তিনি আরো জানিয়েছেন যে, চট্টগ্রাম জেলায় ১২ টি উপজেলায় এবং সিটি করপোরেশন এলাকায় এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে।এ প্রকল্পের আওতায় বিদ্যালয়ে ৮ থেকে ১৪ বছর বয়সী ৩০ জন শিক্ষার্থীকে  সপ্তাহে ৬ দিন ৩ ঘন্টা করে সকাল-বিকাল পাঠদান চলানো হবে। শিক্ষক হিসেবে শহরাঞ্চলে ১০ হাজার টাকা বেতন পাবেন।  গ্রামাঞ্চলে ৫ হাজার টাকা,  ৮ থেকে ১৪ বছর বয়সী ৩০ জন শিক্ষার্থীকে  সপ্তাহে ৬ দিন ৩ ঘন্টা করে সকাল অথবা বিকালে শিখন কার্যক্রম চলবে। শিক্ষার্থীরা মাসে শহরাঞ্চলে ৩০০ টাকা এবং গ্রামাঞ্চলে ১২০ টাকা হারে উপবৃত্তি পাবে। এর পাশাপাশি বই ও পোশাক পাবেন। ৪২ মাসের এ প্রকল্পে একজন শিক্ষার্থীকে পঞ্চম শ্রেণি পাশ করবেন। পঞ্চম শ্রেণি পাশ করার পর মেধা ও দক্ষতার ভিত্তিতে জীবিকায়ন প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে বলে জানান প্রোগ্রাম ম্যানেজার কামরুল ইসলাম। এ প্রকল্পের আওতায় বিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধির এনওসি প্রয়োজন হবে। কোন সরকারি স্কুলে অধ্যায়নরত শিক্ষার্থী এ বিদ্যালয়ে ভর্তি হতে পারবে না। শিক্ষকদের ১২ দিনের মৌলিক  প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।সভায় জানানো হয়, শিশু জরিপের মাধ্যমে শিক্ষার্থী নির্বাচন করতে হবে। প্রতি উপজেলায় ৭০ টি শিখন কেন্দ্র স্থাপন করা হবে। নিয়মিত ক্লাশ পরিচালনার পাশাপাশি সপ্তাহে এক দিন ক্লাব-ডে পরিচালনা করা হবে। ক্লাব-ডে কর্মসূচির আওতায় শিক্ষার্থীদের জীবন দক্ষতা উন্নয়ন ও সহপাঠক্রমিক  কার্যলবলী পরিচালনা করা হবে। শিক্ষকের যথাযথ উপকরণ ব্যবহার ও প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষতা উন্নয়ন করা প্রয়োজন বলে প্রস্তাব করেন লালখান বাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ আজাদ ইকবাল পারভেজ।      

খবরটি অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved dainikshokalerchattogram.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com