বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ০৮:২৫ অপরাহ্ন

শিরোনাম
করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়া লোকজনদেরকে সহায়তার আওতায় আনা হয়েছে – ডিসি চট্টগ্রাম জেলা চট্টগ্রামে এসে পৌঁছেছে মর্ডানা ও সিনোফর্মের আরও ১ লাখ ৮৫ হাজার ২’শ ডোজ কোভিড-১৯ ৫০০ কর্মজীবী ও নির্মাণ শ্রমিকের মাঝে আ জ ম নাছিরের ত্রাণ সহায়তা ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ২৩৭ জনের মৃত্যু লকডাউনকালীন অসহায় শিশু ও গরীব দুঃস্থদের মাঝে চট্রগ্রাম নাগরিক ঐক্যর পক্ষ থেকে রান্না করা খাবার বিতরণ চট্টগ্রামে করোনা সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী, নিরবচ্ছিন্ন সেবা দিয়ে যাচ্ছে এশিয়ান স্পেশালাইজড হসপিটাল আগামী রবি ও বুধবার ব্যাংক বন্ধ আল্লামা মুফতি ইদ্রিছ রেজভীর ইন্তেকাল জাপা নেতা তপন চক্রবর্ত্তীর মৃত্যুতে উত্তর জেলা জাতীয় পার্টির শোক প্রকাশ চট্টগ্রামে ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত ১৩১০ জনের, মৃত্যু ১৮

চসিক প্রশাসকের নির্দেশে নগরীর অলিগলিতে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন কর্মকান্ড অব্যাহত

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক আলহাজ্ব মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন বলেছেন আমরা যদি নিজ নিজ আঙ্গিনা পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখি ও খাল-নালায় ময়লা আবর্জনা না ফেলি তাহলে কোন অবস্থায় খাল-নালা ভরাট হবে না এবং পানি চলাচলে কোন প্রতিবন্ধকতা হতে পারে না। পানি চলাচলে প্রতিবন্ধকতা না থাকলে নগরবাসীকে জলাবদ্ধতার ভোগান্তিতে পড়তে হবে না। আজ সকালে চসিক প্রশাসকের নির্দেশনায় সাবেক সংসদ সদস্য মরহুম মুহাম্মদ ইসহাক মিয়ার বাড়ী সংলগ্ন আগ্রাবাদ ২৪নং ওয়ার্ডস্থ নাছির খান খাল থেকে বিপুল পরিমান ময়লা-আবর্জনা অপসারণ করা হয়। দীর্ঘদিন ধরে ময়লা আবর্জনায় পরিপূর্ণ থাকার ফলে এলাকাটি সামান্য বৃষ্টি হলে জলাবদ্ধতায় পতিত হয়। তাছাড়া ময়লা আবর্জনার ফলে মশার প্রজনন কেন্দ্র সৃষ্টি হয়েছে সেখানে। তাই বর্ষা মৌসুমের আগেই নগরীর খাল ও নালাগুলোকে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করনের মাধ্যমে জলাবদ্ধতার হাত থেকে রক্ষা করাই হচ্ছে সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসকের বর্তমান কর্মপ্রয়াস। সকালে পরিচ্ছন্ন কর্মকান্ড তদারকি করতে গিয়ে ওয়াটসআপে ভিডিওকলে প্রশাসক আরো বলেন, দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে ধারাবাহিকভাবে নগরীর খাল ও বড় আকারের ড্রেইনগুলো পরিস্কারের ব্যবস্থা নিয়েছি। কিন্তু পরিস্কার করার পরও দেখা যাচ্ছে যে কোন কোন এলাকায় জেনে বুঝে আবারো ময়লা আবর্জনা ফেলা হচ্ছে যা অত্যন্ত দুঃখজনক। আমরা নগরবাসীকে আহবান জানাচ্ছি আপনার নিজ ঘরের, বাসা, বাড়ীর কিংবা ফ্ল্যাটের আবর্জনা আপনার আঙ্গিনায় রাখুন সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্নতা কর্মী এসে আপনার আঙ্গিনা থেকেই ময়লা আবর্জনাগুলো অপসারণ করে নিয়ে যাবে। যদি কোন এলাকার কোন বাসা, বাড়ী কিংবা ফ্ল্যাট থেকে সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা ময়লা আবর্জনা নিয়ে না যায় সেক্ষেত্রে আমাকে অথবা সিটি কর্পোরেশনে অবহিত করলে আমরা তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা গ্রহন করবো। তাই জনসাধারনকে আমরা অনুরোধ করবো খালে নালায় ময়লা আবর্জনা ফেলার মতো দায়িত্বজ্ঞানহীন কাজ করা মোটেও উচিত নয়। যারা এই ধরনের গর্হিত কাজ করে ভবিষ্যতে তাদেরকে আইনের আওয়তায় আনা হবে। একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে আমাদের সবাইকে এ ধরনের কর্মকান্ড রোধে সচেষ্ট হতে হবে তাতেই পুরো নগরবাসী এর সুফল ভোগ করবে।

খবরটি অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved dainikshokalerchattogram.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com