সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭:৫৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম
ঢাকার সাংবাদিকরা জামাই আদরে তোপের মুখে আওয়ামী লীগ নেতারা ‘সরকার সশস্ত্র বাহিনীর জন্য আধুনিক যুদ্ধাস্ত্র সংগ্রহ করছে’ ১০ তারিখে বিএনপি ঢাকার বুকে আত্মসমর্পণ করবে, যেভাবে পাকিস্তানিরা করেছিল : তথ্যমন্ত্রী দেশ বাঁচাতে নৌকায় ভোট দিন : প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে: ওবায়দুল কাদের চট্টগ্রামে ২৯ প্রকল্পের উদ্বোধন ও ৪ প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন প্রধানমন্ত্রীর প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় মাঠের বাইরে আরো আট-দশগুণ মানুষ হবে : তথ্যমন্ত্রী আসিফ নজরুল ও সাংবাদিকদের উপর ক্ষেপলেন ভূমিমন্ত্রী ব্রাজিলকে হারিয়ে দিলো ক্যামেরুন ৪ই ডিসেম্বর চট্টগ্রামের রাস্তাঘাটে মানুষের সরব উপস্থিতি থাকবে – হুইপ স্বপন

জুলধা রোহান ডেইরী ফার্মের গরু বিক্রির ২লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করতেই ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির নাটক !

 গরু বিক্রির ২লক্ষ টাকা পাওনা আত্মসাৎ করতে জুলধা রোহান ডেইরী ফার্ম  এর মালিক আলী আহমদের বিরুদ্ধে বড় ভাইরা আবদুর রহমান চাঁদাবাজি মামলা করেন। 

আলি আহমদসহ ৫ জনকে আসামী করে অতিরিক্ত চীফ মেট্টোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত চট্টগ্রামে গত ২৭ সেপ্টেম্বর এ মামলা দায়ের করেন আবদুর রহমান। সিআর মামলা নং৩০৬/২০২২ইং(কর্ণফুলি)। আদালত  মামলা তদন্তের দায়িত্ব কর্ণফুলি থানাকে দেন। তবে এ রিপোর্ট লেখা  পর্যন্ত ( ৩ অক্টোবর, সন্ধ্যা ৬টা) এ মামলা  সংক্রান্ত কোনো কাগজপত্র থানায় আসেনি বলে  সূত্র জানায়।

এছাড়া আবদুর রহমান পরিকল্পিত ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে গত ২ অক্টোবর দুপুরে ব্যবসায়ী আলী আহমেদ এর বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের এস রহমান হলে একটি সংবাদ সম্মেলন করেন। কিন্তু সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত সাংবাদিকদের কোনো প্রশ্নের উত্তর দিতে না পেরে দ্রুত সংবাদ সম্মেলন স্থল ত্যাগ করেন তিনি ।

আলী আহমেদ জানান, আমার বিরুদ্ধে আনীত চাঁদাবাজির মামলাটি মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। এটি আমার পাওনা ২ লক্ষ  টাকা না দেওয়ার একটি ষড়যন্ত্র। 

May be an image of 1 person, outdoors and text

তিনি বলেন, পাওনা টাকা আদায়ে স্থানীয়ভাবে  নানান চেষ্টা করেও পাওনা টাকা আদায় করতে পারিনি । তাই নিরুপায় হয়ে নিজে বাদী হয়ে গত ২৯ সেপ্টেম্বর আবদুর রহমানসহ ৩জনের নাম উল্লেখ করে চীফ মেট্টোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত,চট্টগ্রামে সিআর মামলা নং ৩১১/২০২২ইং(কর্ণফুলি) মামলা দায়ের করি।

এতে আসামীরা হলেন, আবদুর রহমান  ও আবদুল মালেক –পিতা মরহুম আহমদ হোসেন।, রাফাত মাহমুদ  ফরহান ,পিতা –আবদুল মালেক।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে,  রোহান ডেইরী ফার্ম  এর মালিক আলি আহমদ একজন ব্যবসাযী তার প্রমাণ হিসাবে ১নং ( ক) জুলধা ইউনিয়ন পরিষদ এর ট্টেড লাইসেন্স। ক্রমিক নং-১০০৫। ২০২১-২০২২। এছাড়া  ট্টেড লাইসেন্সটিও সকালের চট্টগ্রাম এর হাতে পৌছেছে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী এক ব্যক্তি নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন,ঘটনা দেখছি ,পাওনা টাকা নিয়ে তর্কাতকি হয়। পকেটে হাত দিয়ে টাকা নিতে আমরা কেউ দেখি নাই, এটা মিথ্যা হাস্যকর অভিযোগ ।ওনি প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী। সবাই একনামে আলি আহমদকে গরু ব্যবসায়ী হিসাবে চিনে।

 এ বিষয়ে জুলধা ৮নং ওর্য়াডের ইউপি সদস্য ইমাম হোসেন বলেন, আলী আহমেদ একজন সৎ ব্যবসায়ী। তিনি সন্ত্রাসী বা চাদাঁবাজির সাথে জড়িত নয়। তার ভাইরা আবদুর রহমান সাথে গরুর বিক্রির টাকা নিয়ে হাতাহাতি ও ধাক্কাধাক্কি হয়।

চট্টগ্রাম গবাদী পশু ব্যবসায়ী  সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবদুল আজিজ বলেন, আলী আহমেদ আমার কাছ থেকে প্রতিমাসে কম করে হলেও দুই গাড়ী গরু নেন। ভারত ও দেশের বিভিন্ন জেলার থেকেও গরু এনে ব্যবসা করে, সে চাদাঁবাজ হতে যাবে কেন?

জুলধা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুরুল হক বলেন, আলি আহমেদ নামকরা গরু ব্যবসায়ী। চাদাঁবাজির অভিযোগ মিথ্যা।

আবদুর রহমান এর মুঠোফোনে চাদাঁবাজীর কারণ জানতে চাইলে তিনি এড়িয়ে যান । পরে মোবাইল সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন।  

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, কর্ণফুলি  জুলধা ইউনিয়নের ৮নং ওর্য়াডের আলী মুন্সি মেম্বারের বাড়ী মরহুম দেলোয়ার হোসেনের ছেলে আলী আহমেদ এর রোহান ডেইরী ফার্ম রয়েছে। আলী আহমেদ ভারতসহ বিভিন্ন জেলা থেকে গরু এনে বিক্রয় করে থাকে ।

গত ২০ই সেপ্টেম্বর ২২ আবদুর রহমান নামে এক ব্যক্তি রোহান ডেইরী ফার্ম মালিক আলি আহমদ থেকে দুই লক্ষ সত্তর হাজার  টাকা মূল্যের একটি বিদেশি সাদা কালো দুধের গাভী বাচ্চাসহ ক্রয় করেন । ঐদিন নগদ সত্তর হাজার  টাকা দিয়ে দেন এবং বাকী টাকা ২৫শে সেপ্টেম্বর ২২ইং দিবে বলে উক্ত গাভীটি বাচুরসহ নিয়ে যায় । আবদুর রহমান কথা মতে রোহান ডেইরী ফার্মের কর্মচারী মো : ছৈয়দ হোসেনকে বাকী টাকার জন্য পাঠাইলে ভাইরা আবদুর রহমানসহ কয়েকজন রোহান ডেইরী ফার্ম কর্মচারী মো : ছৈয়দ হোসেনকে  কোনো টাকা না দিয়ে কিল ঘুষি মারে তাড়িয়ে দেয় । ঐদিন সকাল নয়টার সময় জুলধা পাইপের গোড়া বাজারের দক্ষিণ মাথায় আবু তাহের সওদাগরের চায়ের দোকানে আলী আহমেদ ও কর্মচারী সৈয়দ হোসেনের সাথে  আবদুর রহমানের সাথে দেখা হয়। এই সময় আবদুর রহমান মোটর সাইকেল থামায় । আলী আহমেদ গরুর বাকী টাকা চাইলে সে  বলে য , “ আমার থেকে কোনো টাকা পাবে না । তোমার ক্ষমতা থাকলে আমার থেকে টাকা নিও । ” এই কথা বলে সে দ্রুত মোটর সাইকেল নিয়ে চলে যাওয়ার সময় আলি আহমদ ও তার কর্মচারী পেছন থেকে মোটর সাইকেলটি থামায় । মোটর সাইকেল থামানোর পর এক পর্যায়ে হাতাহাতি ও ধাক্কাধাক্কি হয় । হাতাহাতি ও ধাক্কাধাক্কির এক পর্যায়ে মো : আবদুর রহমান ও  মো : আবদুল আলী আহমেদ জানে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে চলে যায় । বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মিমাংসা করার জন্য চেষ্টা করা হয়।

খবরটি অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved dainikshokalerchattogram.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com