বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:০৯ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
নিবন্ধন পেল ইলেকশন মোনিটরিং ফোরাম গণতন্ত্র, অগ্রগতি, বিশ্ব নারী জাগরণের প্রতীক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা : তথ্যমন্ত্রী ৭৫’র পরবর্তী বাংলাদেশে সৎ, যোগ্য ও সাহসী নেতার নাম শেখ হাসিনা : ওবায়দুল কাদের শেখ হাসিনা শুধু দেশেই নন, বহির্বিশ্বেও অন্যতম সেরা রাষ্ট্রনায়ক : রাষ্ট্রপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন আগামীকাল বন্দর হাসপাতালসহ বিভিন্ন সেকশনের শূন্যপদে করোনা ইউনিটের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের পূনবহালের দাবী দুই ব্যবসায়ীকে ৫মাসের কারাদন্ড ১ অক্টোবর থেকে ৫ দিন ব্যাপী দুর্গোৎসব উদযাপিত হবে বিদেশী পর্যটককে আকৃষ্ট করার মত পরিবেশ উপহার দিতে পারলেই দেশের অর্থনীতিকে সমৃদ্ধ করবে: ড. ইদ্রিস আলী আলীকদমের সেই ইউএনওকে ঢাকা বিভাগে বদলি

এমভি জাহান মনিতে দায়িত্বরত নাবিকের রহস্যজনক মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক:
ভারতের মুম্বাইয়ে বাংলাদেশী জাহাজ এমভি জাহান মনিতে অনবোর্ড থাকা অবস্থায় বাংলাদেশী নাবিক আবু জাহেদের (২২)-এর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। দুই মাস ধরে জাহাজে দায়িত্বরত থাকা অবস্থায় শারিরীক ও মানষিক নির্যাতনের ধারাবাহিকতায় গত ৩১ মে মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতালে তার মৃত্যু ঘটে বলে তার সহকর্মী ও পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ তোলা হয়েছে। নিহত নাবিক আবু জাহেদ জাহাজ এমভি জাহান মনিতে ডেক ক্যাডেট হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এ ব্যাপারে জাহাজের পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান এস আর শিপিং এজেন্সির নির্বাহী কর্মকর্তা কোন মন্তব্য করতে অস্বীকার করেছেন।
নিহত আবু জাহেদের ভাই, রাসেল পারভেজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জানান, আবু জাহেদ চট্টগ্রাম মেরিন ফিশারিজ একাডেমির ক্যাডেট ছিলেন। গত মার্চ সে চট্টগ্রামের এস আর শিপিং এজেন্সির জাহাজ এমভি জাহান মনিতে যোগদান করে। মার্চে জাহাজে অনবোর্ড হওয়ার পর থেকে সমুদ্রে বিভিন্ন গন্তব্যে যাতায়তকালীন উর্ধতন কর্মকর্তা তার উপর শারিরীক ও মানষিক নির্যাতন করছিলো বলে বিভিন্ন সময়ে ফোনে পরিবারের কাছে অভিযোগ করে বলে জানান রাসেল পারভেজ।

নিহত আবু জাহেদের সহকর্মী মিনহাজ উদ্দিন ও আফজাল রিয়াজ বলেন, আমরা জানতে পেরেছি অনবোর্ড হওয়ার পর থেকেই আবু জাহেদের তার উপর কাজের জন্য অনেক প্রেসার দেওয়া হত, ভোর ৪টা থেকে টানা রাত ৮ টা পর্যন্ত তাকে অনবরত ডিউটি করতে বাধ্য করা হতো। এর ফলস্বরূপ এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহের দিকে সে জ্বরে আক্রান্ত হয়, জ্বরের জন্য তাকে ৩দিন শিপে আইসোলেটেড করা হয়। পরবর্তীতেত জ্বর সেরে গেলে এবং কিছুটা সুস্থ হলে আবার ও প্রতিদিন তাকে ১৬ থেকে ১৮ ঘন্টা ডিউটি করতে বাধ্য করা হয়। গত সপ্তাহে জাহেদ গুরুতর অসুস্থ হলে তাকে উপযুক্ত চিকিৎসার ব্যবস্থা না করেন কিছু এন্টিবায়োটিক খেয়ে ডিউটিতে যেতে বাধ্য করা হয় ।

গত ৩০ মে মুম্বাইয় বন্দরে জাহাজটি এংকরে লোডিং করার সময় জাহেদ মাথা ঘূরে পড়ে যায় এবং তার রক্তবমি শুরু হয়। এই সময় তাকে ফ্রেশ ওয়াটার এর বোটে করে মুম্বাইয়ে শোরে হসপিটালে আনা হয় ৩১ মে তার মৃত্যু ঘটে। সহকর্মীরা জানান জাহাজটি মুম্বাই বন্দরে যাওয়ার আগে চায়না, ফিলিপাইন, ইন্দোনেশিয়া বন্দর ঘুরে আসলে গুরুতর অসুস্থ জাহেদের কোন চিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহন করেনি জাহাজের সিনিয়র কর্মকর্তারা।
এ প্রসঙ্গে জাহাজ কর্তৃপক্ষ এস আর শিপিং এজেন্সির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মেহেরুল করিমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ ব্যাপারে কোন মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়ে বলেন, নিহতের পরিবারের সাথে আমাদের যোগাযোগ হয়েছে। তার লাশ দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা নিয়েছে শিপিং এজেন্সি।
নিহত আবু জাহেদের ভাই রাসেল পারেভেজ বলেন, আমরা আমরা আমার ভাইয়ের মৃত্যুর ঘটনায় সঠিক তদন্ত দাবী করছি। তার মৃত্যুর জন্য যারা দায়ী তাদের শাস্তি ও উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দাবী করছি।

খবরটি অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved dainikshokalerchattogram.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com