মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১২:০৮ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
এই সরকার বাংলাদেশকে চরম অবক্ষয়ের দিকে নিয়ে যাচ্ছে – ডা. শাহাদাত এডিস মশার বংশ বিস্তার রোধে অভিযান ৪ ব্যক্তিকে ১৮ হাজার টাকা জরিমানা পরিকল্পিত আবাসন গড়ার মাধ্যমে নিরাপদ ও বাসযোগ্য নগরী গড়তে হবে দেশে ফিরলেন সিটি মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী জুলধা রোহান ডেইরী ফার্মের গরু বিক্রির ২লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করতেই ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির নাটক ! সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তুলতে কন্যা শিশুদের যথাযথ নিরাপত্তা নিশ্চিত করা অপরিহার্য : প্রধানমন্ত্রী দেশে সাম্প্রাদায়িক সম্প্রতি বজায় রাখতে সরকার বদ্ধপরিকর : আইনমন্ত্রী দেশে ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত হয়ে দুইজনের মৃত্যু পূজায় জঙ্গি হামলার কোনো হুমকি নেই : র‌্যাব ডিজি সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে প্রতিহত করতে হবে : কৃষিমন্ত্রী

বাশঁখালীর সফল খামারি মোহাম্মদ কামরুল হাসান

সমুদ্র কোল ঘেষে গড়ে উঠেছে সাঙ্গু এগ্রোর প্রজেক্ট ।এই প্রজেক্ট সবার নজর কাড়ে। প্রজেক্ট এর পরিবেশ অনেক ভালো। ভেতর-বাইরে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখেন সব সময়। এ ছাড়া মশা-মাছি আর পোকামাকড় প্রতিরোধেরও ব্যবস্থা আছে।

বাশঁখালী উপজেলা পুকুরিয়া ইউনিয়নের বরুমচড়ার মোহাম্মদ আশরাফউজ্জামান চৌধুরীর ছেলে সফল ঠিকাদার ও ট্রাভেল ব্যবসায়ী মোহাম্মদ কামরুল হাসান চৌধুরী সাঙ্গু এগ্রো প্রজেক্ট গড়ে তুলেন । বিশ্ব যখন মহামারী করোনার ভয়ে আতংকে ঘর থেকে বের হচ্ছে না তখন সাহসী যুবক মোহাম্মদ কামরুল হাসান চৌধুরী এগিয়ে আসেন এবং ৬ একর জমিতে এই প্রজেক্ট গড়ে তুলেছেন। তাতে মৎস্য,ডেইরি,ডিমের মুরগি, ফলজ গাছ ও সবজি বাগান রয়েছে ।

প্রথমে তিনটি পুকুর খনন করে মৎস্য চাষের মাধ্যমে প্রজেক্ট শুরু করেন এবং পুকুরপাড়ে দেশি –বিদেশী বিভিন্ন জাতের ফলজ ও সবজি চাষ করেন ।পর্যায়ক্রমে গড়ে তুলেছেন গরুর ফার্ম । বর্তমানে এই ফার্মে দৈনিক প্রায় ২শত লিটার দুধ উৎপাদন হয়।এলাকার চাহিদা মিটিয়ে শহরে বিভিন্ন দোকানে সরবরাহ করা হয়। খামারের কাছে জমিতে বুনেছেন ঘাস। সেখান থেকে ঘাস এনে খাওয়ান গাভিকে। ১০ হাজার মুরগি একটি সেট রয়েছে ।যাতে ডিমের মুরগি রয়েছে ।শিঘ্রই ডিম উৎপাদন শুরু হবে।

তিনি পুকুর পাড়ে রোপন করেছেন বিভিন্নজাতের দেশি-বিদেশী ফলেজ গাছ তার মধ্যে উলেখ্যযোগ্য ৩শত মালটা গাছ ও প্রায় শতাধিক আজোয়া খেজুর গাছ ।খামারে ৩০জন কর্মচারী কাজ করেন। প্রত্যেককে ১০ থেকে ১৬ হাজার টাকা করে বেতন দিতে হয়।

সাঙ্গু এগ্রোর প্রজেক্টের মালিক মোহাম্মদ কামরুল হাসান চৌধুরী প্রংশসা করে এলাকার কাদের নামে এক ব্যক্তি বলেন,তিনি শিক্ষিত হয়ে খামার গড়ে তুলেছেন। তার দেখাদেখি এলাকার বেকার যুব সমাজ এগিয়ে আাসবে।এ খামার এখন গ্রামের অন্য বেকার যুবকদের জন্য একটি উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত ও প্রেরণার উৎস। তার এই র্ফামের মাধ্যমে এলাকার ৩০/৩৫ জন মানুষের কর্মসংস্থান হয়েছে।ভেজাল মুক্ত দুধ পাচ্ছি ।ডিম উৎপাদন শুরু হলে এলাকার চাহিদা পূরর্ণ হবে।বিদেশী বিভিন্ন ফল ও সবজির সাথে পরিচিত হচ্ছি যা আগে আমরা কোনদিন দেখি নাই।

সাঙ্গু এগ্রোর প্রজেক্টের মালিক মোহাম্মদ কামরুল হাসান চৌধুরী বলেন,আমি চ্যালেঞ্জ হিসাবে নিয়েছি ।পরিশ্রম করলে সফলতা আসবে।আমি এগিয়ে যাচ্ছি। এত সম্ভাবনা থাকার পরও খামার করতে নানা সমস্যায় পড়তে হয় ।কৃষকরা যদি স্বল্প সুদে ঋণ পেত তাহলে খামার করতে আরও আগ্রহ পেত। সরকারের উচিত কৃষকদের সহজ শর্তে ঋণ দেওয়া এবং প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মাধ্যমে প্রযুক্তি এবং প্রশিক্ষেণের ব্যবস্থা করা।

খবরটি অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved dainikshokalerchattogram.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com