বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ০৯:২০ পূর্বাহ্ন

প্রবাসী যুবলীগ নেতা আদিলুর রহমানের সন্ধানে“ মা”এর সংবাদ সম্মেলন

চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধা  মমতাজ মিয়ার একমাত্র সন্তান অপহরণের শিকার প্রবাসী যুবলীগ নেতা আদিলুর রহমান সুজনের সন্ধানের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

https://www.youtube.com/shorts/IHyHOIAeYJY

আজ বৃহস্পতিবার সকালে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন সন্ধান চান মা বুলবুলি আকতার।

লিখিত বক্তব্যে তিনি জানান,একমাত্র সন্তান আদিলুর রহমান সুজনকে চট্টগ্রাম নগরের কাপ্তাই রাস্তার মোড় থেকে সাদা পোশাকে (পুলিশ পরিচয়দানকারী) সন্ত্রাসীরা গত ০৬ই অক্টোবর সন্ধ্যার দিকে উঠিয়ে নিয়ে গেলেও আজ    ১৪ অক্টোবর (৯দিন) পরও তার খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। আমার ছেলে দীর্ঘ দিন ধরে প্রবাসে আবুদাবিতে চাকরি করছেন। সে দেশে ও বিদেশে বাংলাদেশ যুবলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। দুই সন্তানের জনক আদিলুর রহমান সুজন বিগত ০৪ই মে ২১ ইং  পবিত্র ঈদুল ফিতর পালন করার জন্য দেশে বেড়াতে আসেন।  পারিবারিকভাবেও সুখে শান্তিতে জীবন যাপন করছিল। আগামী ১৬ অক্টোবর তার বিদেশে ফিরে যাওয়ার কথা ছিল। গত ৬ অক্টোবর সন্ধ্যা ৬টার দিকে আমার ছেলে আদিলুর রহমান ব্যক্তিগত কাজে ঘর থেকে বের হন। পরবর্তীতে রাত ১১টার সময়ও ঘরে না ফেরায় তার মোবাইল নং-০১৮১৬৪৪৪৭৮৭ এ ফোন করলে মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়। পরবর্তীতে আমি ও তার স্ত্রী উৎকণ্ঠিত হয়ে নিকটাত্মীয়-স্বজন ও বন্ধুদের মাধ্যমে খোঁজ খবর নিতে থাকি। এক পর্যায়ে আমরা জানতে পারি, আমার ছেলে ব্যক্তিগত কাজে চট্টগ্রাম নগরীতে যাওয়ার পথে কাপ্তাই রাস্তার মোড়ে পৌঁছলে ওই স্থানে আগে থেকে ওৎপেতে থাকা সাদা পোশাকধারী (পুলিশ পরিচয় দানকারি) সন্ত্রাসীরা তাকে একটি কালো মাইক্রোবাসে জোর করে তুলে নিয়ে যায়। আমরা এমন সংবাদে সরকারি বিভিন্ন সংস্থার সাথে যোগাযোগ করলে তারা আমার ছেলের খোঁজের ব্যাপারে অসহযোগিতা করেন। আমরা র‌্যাব,পুলিশ, সিআইডি,ডিবিসহ বিভিন্ন সংস্থার কাছে বারবার খোঁজ নেওয়ার জন্য গেলেও তারা আমার ছেলের খোঁজ নেবেন বলে আশ্বাস্ত করে সময় ক্ষেপন করছেন। ছেলের খোঁজ পেতে চান্দগাঁও থানায় জিডি করতে গেলে তারা জিডি নেননি। পরে বাধ্য হয়ে বোয়ালখালী থানায় একটি নিঁখোজ  ডায়েরি করি। ইতিমধ্যে একাধিক মোবাইল নম্বর থেকে অজ্ঞাতনামা লোকজন আমাদেরকে মোবাইলে কল করে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি ও হুমকি দিয়ে অনৈতিক সুবিধা নিতে চাচ্ছে। বিষয়গুলো উল্লেখ করে গত ১১ অক্টোবর ২০২১ ইং তারিখে আমি বাদি হয়ে চট্টগ্রামের চীফ জুড়িসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে বিশেষ ডায়রী নং-২২৩/২০২১ ইং (বোয়ালখালী) ফৌজদারি কার্যবিধি আইনের ৪৪ ধারায় দায়ের করি। সুজন নিখোঁজের ৯দিন পেরিয়ে গেলেও তাকে উদ্ধার করতে না পারায় তার স্ত্রী অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তার সাত মাসের সন্তান সুহাত তার বাবাকে খোঁজে না পেয়ে কান্নাকাটি করছে।

মুক্তিযোদ্ধের অন্যতম সংগঠন আওয়ামী যুবলীগের একনিষ্ঠ কর্মী সুজনকে উদ্ধারে প্রধানমন্ত্রী,স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী,পুলিশ কমিশনার,পুলিশ সুপার,থানারঅফিসার ইর্নচার্জসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থাসহ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।  কামনা করছি।

আমার স্বামী ও সুজনের বাবা  বোয়ালখালীর আহলা করলডেঙ্গা এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা মমতাজ মিয়া। তিনি ১৯৭১ সালে দেশের জন্য জীবনবাজি রেখে বঙ্গবন্ধুর ডাকে দেশের জন্য যুদ্ধ করেছেন। এজন্য আমি নিজেকে গর্ববোধ করি। কিন্তু যে দেশের জন্য আমার স্বামী জীবনবাজি রেখে ছিলেন তাঁর সন্তান ৯দিন ধরে নিঁখোজ। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন অপহরণের শিকার যুবলীগ নেতা আদিলুর রহমানের স্ত্রী,দুই সন্তান ও মামা ।

খবরটি অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved dainikshokalerchattogram.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com