রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১১:৪২ অপরাহ্ন

শিরোনাম
আওয়ামী লীগ নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করতে চায় : প্রধানমন্ত্রী বিদেশী রাষ্ট্রের সহযোগিতা পেলে পাচারকৃত অর্থ উদ্ধার করা সম্ভব : দুদক মহাপরিচালক রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে ঐকমত্য প্রতিষ্ঠায় ইসি চেষ্টা চালিয়ে যাবে : সিইসি পদ্মা সেতু নির্মাণের সব কৃতিত্ব বাংলাদেশের জনগণের : প্রধানমন্ত্রী বিএনপি জনগণের বিষয় নিয়ে আন্দোলন করে না : তথ্যমন্ত্রী আওয়ামী লীগ জনকল্যাণের রাজনীতি করে : ওবায়দুল কাদের চট্টগ্রাম ই-শপ বিজনেস কমিউনিটি উদ্বোধন কৃতী সম্পাদক অধ্যাপক মরহুম আফজল মতিন সিদ্দিকী দৈনিক পূর্বতারা’র প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক মরহুম অধ্যাপক আফজল মতিন সিদ্দিকীর ১৪ম মৃত্যুবার্ষিকী আগামীকাল ডি ওয়াই ডি এফ এর চট্টগ্রাম বিভাগীয় সম্মেলন ও এওয়ার্ড ফাংশন-২০২২ সম্পন্ন

আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে একযুগ পর কোপার ফাইনালে ব্রাজিল

কোপা আমেরিকার সেমিফাইনালে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে ব্রাজিল। বুধবার (০৩ জুলাই) সকালের ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আর্জেন্টিনাকে ২-০ গোলে হারায় স্বাগতিকরা।

কোপা আমেরিকার মঞ্চে শুরু থেকেই নড়বড়ে ছিল আর্জেন্টিনা শিবির। কলম্বিয়ার বিপক্ষে পরাজয় দিয়ে হোঁচট খায় আলবিসেলেস্তেরা। পরের ম্যাচে প্যারাগুয়ের সঙ্গে ড্র করে আবারো ধাক্কা খায় মেসির দল। পরে কাতারকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠে। এরপর শেষ আটে ভেনেজুয়েলাকে সহজেই হারিয়ে সেফিফাইনাল নিশ্চিত হয়।

অন্যদিকে পুরো টুর্নামেন্ট জুড়েই দারুণ ফুটবল খেলেছে ব্রাজিল। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই কোয়ার্টার ফাইনাল, এরপর প্যারাগুয়েকে ট্রাইব্রেকারে হারিয়ে সেমিফাইনালের টিকিট পায় তিতের দল।

ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই দুর্দান্ত এক আক্রমণ করেন রবার্তো ফিরমিনো। তবে তার সে প্রচেষ্টা রুখে দেন আর্জেন্টাইন গোলরক্ষক ফ্রাঙ্কো আরমানি। তবে পরবর্তীতে সেটিকে অফসাইড দেখানো হয়।

নবম মিনিটের মাথায় ফের আর্জেন্টাইন রক্ষণে করে স্বাগতিকরা। ফরোয়ার্ড গ্যাব্রিয়েল হেসুসকে রুখতে গিয়ে ফাউল করে বসেন নিকলাস তালিয়াফিকো। ম্যাচের দশ মিনিট হওয়ার আগেই প্রথম হলুদ কার্ড দেখান রেফারি।

তবে ম্যাচে প্রথম গোলের সুযোগটা তৈরি করেছিল আর্জেন্টিনাই। ফাঁকায় থাকা লিওনার্দো পারেদেস ১২ মিনিটের মাথায় দুর্দান্ত এক শট নেন ব্রাজিলের গোলবারের উদ্দেশ্যে। যা পরাস্ত করে গোলরক্ষক অ্যালিসন বেকারকেও। কিন্তু তা একটুর জন্য বারের ওপর দিয়ে চলে যায়। বড় সুযোগ হারায় মেসির দল।

১৯ মিনিটেই প্রথম গোল করে ফেলে ব্রাজিল। অধিনায়ক দানি আলভেস দুই ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে বল সামনে বাড়ান রবার্তো ফিরমিনোকে উদ্দেশ্যে করে। তবে তিনি তা রিসিভ না করে সরাসরি পাস দেন ডি-বক্সে ফাঁকায় দাঁড়ানো গ্যাব্রিয়েল হেসুসকে। সুযোগসন্ধানী হেসুস কোনো ভুল করেননি গোলের সহজতম এ সুযোগটি কাজে লাগাতে।

আর্জেন্টিনার সামনে এ গোল শোধ করার দারুণ এক সুযোগ আসে ৩০তম মিনিটে। বাম পাশ থেকে লিওনেল মেসির ফ্রি-কিকে সবার চেয়ে ওপরে লাফিয়ে মাপা হেড করেন সার্জিও আগুয়েরো। কিন্তু সেটি গিয়ে আঘাত হানে ক্রসবারে। সেবারও গোল মিস করে আর্জেন্টিনা।

প্রথমার্ধের বাকি সময়টা দুই পক্ষের আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে শেষ হয়।

বিরতি থেকে ফিরে ৭১তম মিনিটেই ফিরমিনোর গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করে কোপার আটবারের চ্যাম্পিয়নরা। তবে এই গোলের প্রধান সাহায্যকারী জেসুস। মাঝমাঠ থেকে ম্যানচেস্টার সিটির এই স্ট্রাইকার ডি-বক্সে ঢুকে ডান দিকে বল বাড়ান। ফাঁকায় বল পেয়ে বাকিটা অনায়াসে সারেন লিভারপুলের ফরোয়ার্ড ফিরমিনো।

এই গোলেই জয় অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে যায় স্বাগতিকদের। বাকীটা সময় আর্জেন্টিনা শুধু চেস্টাই করে গেছে, গোলের দেখা আর পায়নি।

শেষ পর্যন্ত ২-০ গোলে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে একযুগ পর কোপার ফাইনালে উঠলো তিতের শিষ্যরা। ২০০৭ সালে সবশেষ ফাইনাল খেলেছিলো ব্রাজিল।

খবরটি অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved dainikshokalerchattogram.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com